বাংলাদেশের প্রচলিত রেওয়াজ হতে সংস্কৃতি চিহ্নিত এবং বৈচিত্র্যের কারণ উল্লেখ করে গ্রামশহর ও বাঙালি-ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর মধ্যে সাংস্কৃতিক ভিন্নতা নিরূপণ।

সপ্তম শ্রেণীর চতুর্থ সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্টে নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। প্রিয় সপ্তাহ শ্রেণীর 2022 শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থীরা। তোমরা এইতো মধ্যে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সপ্তম শ্রেণীর চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন পেয়েছো। আজ আমরা তার নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর তৈরি করে আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি। ফলে শিক্ষার্থীরা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এসাইনমেন্ট এর উত্তর ডাউনলোড করে এসাইনমেন্ট তৈরি করে নিতে পারবে।

আপনি কি সপ্তম শ্রেণীর 2022 শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থী? অথবা সপ্তম শ্রেণীর চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন পেয়েছেন কিন্তু উত্তর পাইনি? আমরা দিচ্ছি সবার আগে সর্বপ্রথম সপ্তম শ্রেণীর চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর। ফলে শিক্ষার্থীরা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে উত্তর সংগ্রহ করে খুব সহজেই এসাইনমেন্ট তৈরি করে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে যেতে পারে। সপ্তম শ্রেণীর চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর পেতে নিচের অংশ ভালভাবে দেখুন।

সপ্তম শ্রেণী চতুর্থ সপ্তাহ বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন

যেহেতু এসাইনমেন্ট তৈরি করার পূর্বে অবশ্যই প্রশ্ন দেখে ভালোভাবে বুঝে এসাইনমেন্ট তৈরি করা উচিত। তাই আমরা উত্তরের পূর্বে প্রশ্ন নিয়ে কিছুটা আলোচনা করেছি যাতে করে শিক্ষার্থীরা খুব সহজেই প্রশ্ন বুঝে পরবর্তীতে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে উত্তর ডাউনলোড করে অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করে নিতে পারে। তাই শুরুতে প্রশ্ন এবং প্রশ্নের নিচে উত্তর দেওয়া হল। সপ্তম শ্রেণীর চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন নিচে দেওয়া হল।

অ্যাসাইনমেন্ট (শিরােনামসহঃ

বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য :

বাংলাদেশের প্রচলিত রেওয়াজ হতে সংস্কৃতি চিহ্নিত এবং বৈচিত্র্যের কারণ উল্লেখ করে গ্রামশহর ও বাঙালি-ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর মধ্যে সাংস্কৃতিক ভিন্নতা নিরূপণ।

শিখনফল/বিষয়বস্তুঃ

১. ধর্ম, ভাষা ও সম্প্রদায় বিচারে বাংলাদেশের সংস্কৃতি কেমন তা ব্যাখ্যা। করতে পারবে;

২. বাংলাদেশের গ্রাম ও শহরের সংস্কৃতি সম্পর্কে বর্ণনা করতে পারবে;

৩. বাংলাদেশের লােক সংস্কৃতি ও এর উপাদান বর্ণনা করতে পারবে;

৪. বাংলাদেশের নৃগােষ্ঠীর সাংস্কৃতিক জীবন সম্বন্ধে বর্ণনা করতে পারবে;

অ্যাসাইনমেন্ট প্রণয়নের নির্দেশনাঃ

নিচের ধাপ অনুসরণ করে অ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে।

  1. আমাদের প্রচলিত রীতি ও রেওয়াজ দেখে আমাদের। সংস্কৃতি চিহ্নিত করতে হবে।
  2. ধর্ম, ভাষা, সম্প্রদায় বিচারে আমাদের সংস্কৃতির বৈচিত্র্য ব্যাখ্যা করতে হবে।
  3. গ্রাম ও শহরের মধ্যে সাংস্কৃতিক ভিন্নতা ব্যাখ্যা করতে হবে।
  4. বাঙালি এবং ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর সাংস্কৃতিক জীবন ধারার মধ্য হতে কমপক্ষে ৪টি ভিন্নতা নির্ধারণ করে প্রমাণ করতে হবে যে এদের মধ্যে। সাংস্কৃতিক ভিন্নতা রয়েছে।

সপ্তম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় চতুর্থ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

প্রিয় সপ্তাহ শ্রেণীর 2022 শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থীরা। এতক্ষণ নিশ্চয় ভাবতেছ প্রশ্ন তো দেখলাম কিন্তু উত্তর কোথায়? তাই চলো আর দেরী না করে তোমাদের চতুর্থ সপ্তাহের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর দেখে নেয়া যাক।

উত্তরঃ

থ, সাংস্কৃতিক ভিন্নতা চিহ্নিতকরণ: ধর্ম, ভাষা, সম্প্রদায় বিচারে সাংস্কৃতিক ভিন্নতা নিচে তুলে ধরা হলাে:

ধর্ম বিচারে সাংস্কৃতিক ভিন্নতাঃ ধর্ম মানুষের ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে খুবই বড় ভূমিকা পালন করে। (free academy) এক এক ধর্মের এক এক উৎসব যেমন মুসলমানদের ঈদ উৎসব, হিন্দুদের দুর্গা পুজা, বৌদ্ধদের বৌদ্ধ পূর্ণিমা, খ্রিষ্টানদের বড় দিন ইত্যাদি। ।

ভাষা বিচারে সাংস্কৃতিক ভিন্নতাঃ বাংলাদেশের অধিকাংশ বাংলা ভাষায় কথা বলে। অপরদিকে চাকমা, মারমা, গারাে, খাসিয়া ইত্যাদি ক্ষুদ্র নৃ-জাতিগােষ্ঠীর মানুষদের ভিন্ন ভিন্ন ভাষা রয়েছে।  এদেশের মানুষের প্রধান ভাষা বাংলা হলেও এই ভাষার মধ্যে দিনে দিনে অনেক ভাষার মিশ্রণ ঘটেছে। বাংলা ভাষায় খোঁজ করলে পাওয়া যায় অস্ট্রিক, দ্রাবিড়, সংস্কৃত ইত্যাদি অনেক বিদেশী ভাষার মিশ্রণ। ।

সম্প্রদায় বিচারে সাংস্কৃতিক বৈচিত্রঃ ধর্ম এবং ভাষার মতাে সম্প্রদায়ের দিক থেকেও সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য দেখা যায় বাংলাদেশে।  এদেশের ধর্ম সম্প্রদায়গুলাে দর্শনীয় আচার অনুষ্ঠান ছাড়াও প্রত্যেকের আলাদা সামাজিক জীবন যাপন পদ্ধতি আছে। সামাজিক আচার অনুষ্ঠান পালনে এক এক সম্প্রদায়ের এক এক ধরনের নিযুককানুন পালনে রয়েছে ভিন্নতা।

গ. গ্রাম ও শহরের সংস্কৃতির উপাদান:

গ্রাম ও শহরের মধ্যে ৪টি সাংস্কৃতিক ভিন্নতা চিহ্নিত করে নিচে ব্যাখ্যা করা হলাে:

১. পেশাগত সাংস্কৃতিক ভিন্নতা: গ্রামের মানুষ নানা ধরনের পেশার সাথে যুক্ত। যে সব পেশাজীবী গ্রামে বাস করে তাদের মধ্যে উল্লেখযােগ্য হচ্ছে কৃষক, জেলে, তাঁতি, কামার, কুমার, মাঝি, দর্জি, কবিরাজ, ডাক্তার ইত্যাদি। অপরদিকে শহরের মানুষ শিক্ষকতা, ডাক্তারি, ব্যবসা, শিল্প প্রতিষ্ঠান পরিচালনা ইত্যাদি পেশার সাথে যুক্ত।

২. পােষাকগত সাংস্কৃতিক ভিন্নতা: একসময় গ্রামের মানুষ সাধারণ পােশাক পরতেন। পুরুষেরা লুঙ্গি পরে খালি গায়ে অথবা গেঞ্জি বা ফতুয়া পরে কৃষি কাজ করেন। মেয়েরা সাধারণত সুভির শাড়ি পরিধান করে। কিশাের ছেলেরা লুঙ্গি-শার্টের পাশাপাশি প্যান্ট শার্ট পরিধান করে। মেয়েরা ফ্রক, সালােয়ার কামিজ আর শাড়ি পড়ে। পক্ষান্তরে শহরের মানুষের মধ্যে পােষাকগত বেশ পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। (free academy) পুরুষেরা প্যান্ট, শার্ট, কোট, টি-শার্ট পরিধান করে আর মেয়েরা শাড়ি সালােয়ার কামিজ এবং আধুনিক পােষাক পরিধান করতে স্বাচ্ছন্দবােধ করে।

৩. সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানগত পার্থক্য: গ্রামের মানুষেরা বিভিন্ন পালা পার্বন, যাত্রা, লাঠিখেলা, নৌকাবাইচ ইত্যাদি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আযােজন করে থাকে। শহরের মানুষেরা বিভিন্ন পার্টি, বিভিন্ন ধরনের কনসার্ট, সিনেমা দেখা ইত্যাদি মাধ্যমে অবসর সময় পার করে থাকে।

৪। খাদ্যাভাসগত পার্থক্যঃ গ্রামের মানুষ সাধ্যমতাে মাছ, ভাত, শাকসবজি, ডাল ইত্যাদি খায়। নানা ধরনের পিঠাপুলি তৈরি হয়।গ্রামের অনেক শাকসবজি ফলিয়ে নিজেদের খাবারের চাহিদা মিটিয়ে বিক্রি করে থাকে। ভাত, মাছ মাংস খেলেও শহুরে মানুষের খাবারে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে। শহরের মানুষের অনেকেই ফাস্ট ফুডের দোকানে যায়। ভাদের অনেকের কাছে স্যান্ডউইচ, বার্গার ইত্যাদি

ঘ. বাঙালি সংস্কৃতি ও ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর সংস্কৃতির মধ্যে ভিন্নতা নিরূপণ:

১। উৎসবগত ভিন্নতা: বাঙালি সংস্কৃতি ঘুদ্র নৃগােষ্ঠীর সংস্কৃতির উৎসবগত ভিন্নতা রয়েছে। বাঙালি উৎসব গুলাের মধ্যে চৈত্র সংক্রান্তি, নববর্ষ, পহেলা ফাল্গুন ইত্যাদি উল্লেখযােগ্য অপরদিকে ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর সংস্কৃতির মধ্যে বৈসুক, বিজু, বৈসাবি ইত্যাদি উৎসব অন্যতম।

২। লােকবিশ্বাসগত ভিন্নতা: পূর্বে গ্রাম বাংলার মানুষের মাঝে লােকবিশ্বাস প্রবনতা। বেশি থাকলেও বর্তমানে বাঙালি সংস্কৃতিতে আধুনিকতার ছোঁয়ায় তা দিন দিন উঠে যাচ্ছে। অপরদিকে অন্য সব ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর মতাে বাংলাদেশের ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর মানুষের মধ্যে নানাধরনের বিশ্বাস কাজ করে।

৩। পােশাকগত ভিন্নতা: বাঙালি সংস্কৃতিতে বাঙালিরা সাধারণত পুরুষেরা লুঙ্গি, প্যান্ট, সেক্সি, মেয়েরা শাড়ি, সেলােয়ার কামিজ ইত্যাদি পরিধান করে। পক্ষান্তরে ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর সদস্যরা পিনােন, থামি, ওরাওঁরা ধুতি ও শার্ট পরিধান করে।

৪। খাদ্যগত ভিন্নতা: বাঙালি সংস্কৃতিতে যারা যার ধর্ম মতে হালাল খাবার গ্রহণ করে থাকে। পক্ষান্তরে কোনাে কোনাে ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর মানুষ বিশ্বাস করে একটি নির্দিষ্ট গ্রাণী হচ্ছে তাদের গােত্রের প্রতীক। পাবর্ত চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র নৃগােষ্ঠীর নাপ্পি বা সিদোল অতি প্রিয়। ভাত থেকে বিশেষ প্রক্রিয়ায় তৈরি এক ধরনের পানীয় অধিকাংশ নৃগােষ্ঠীর মানুষের কাছে বিশেষ প্রিয়।

আরও দেখুনঃ

৭ম শ্রেণি [৪র্থ সপ্তাহ] ইংরেজি অ্যাসাইনমেন্ট 2022। Class 7 [4th Week] English Question & Answer

Check Also

১০ম শ্রেণি [৩য় সপ্তাহ] বাংলা এসাইনমেন্ট উত্তর 2022। Class 10 Bangla Assignment

আজ দশম শ্রেণীর 2022 শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের তৃতীয় সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন প্রকাশিত …