যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান ও কলা উভই- ধারণাটির যথার্থতা যাচাই। এইচএসসি ব্যাচ 2021 যুক্তিবিদ্যা ১ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

এইচএসসি পরীক্ষার্থী 2021 সালের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের যুক্তিবিদ্যা অ্যাসাইনমেন্ট এর সঠিক এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। আমরা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে এইচএসসি যুক্তিবিদ্যা প্রথম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন সংগ্রহ করে এর পূর্ণাঙ্গ উত্তর তৈরি করেছি। যা এইচএসসি 2021 সালের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের যুক্তিবিদ্যা এসাইনমেন্ট এর সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়ার নিশ্চয়তা প্রদান করে। আপনার যদি এইচএসসি মানবিক বিভাগে যুক্তিবিদ্যা সাবজেক্ট হিসেবে থেকে থাকে তাহলে এই পোষ্ট টি আপনার জন্য। কেননা আপনি আমাদের ওয়েবসাইট থেকে যুক্তিবিদ্যা প্রথম সপ্তাহ আসামের সহ সকল বিষয়ে সঠিক এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর পেয়ে যাবেন। এইচএসসি 2021 সালের যুক্তিবিদ্যা প্রথম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর নিচে দেওয়া হল।

এইচএসসি ব্যাচ 2021 যুক্তিবিদ্যা ১ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন

ছাত্রছাত্রীরা যাতে প্রশ্ন দেখে বুঝে প্রশ্নের নমুনা দেয়া সিমেন্টের উত্তর সংগ্রহ করতে পারে। এজন্য শুরুতে এইচএসসি ব্যাচ 2021 এর যুক্তিবিদ্যা প্রথম সপ্তাহের প্রশ্ন তুলে ধরা হলো। আপনারা অবশ্যই শুরুতে প্রশ্নের নির্দেশনা পরে নির্দেশনা অনুযায়ী অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর লিখবেন। যুক্তিবিদ্যা প্রথম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন নিচে দেওয়া হল।

প্রথম অধ্যায়ঃ যুক্তিবিদ্যা পরিচিতি।

অ্যাসাইনমেন্টঃ

যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান ও কলা উভই- ধারণাটির যথার্থতা যাচাই।

শিখনফল/বিষয়বস্তুঃ

  • যুক্তিবিদ্যার ধারণা বর্ণনা করতে পারবে।
  • বিভিন্ন যুক্তিবিদ এর প্রদত্ত ধারণার বিশ্লেষণ ও তুলনা করতে পারবে।
  • যুক্তিবিদ্যার স্বরূপ বিশ্লেষণ করতে পারবে।

নির্দেশনাঃ

  1. ক) যুক্তিবিদ্যার ধারণাঃ
  • অ্যারিস্টোটল।
  • জে এস মিল।
  • জোসেফ।
  • আই এম কপি।
  1. খ) বিজ্ঞান ও কলার বৈশিষ্ট্য
  2. গ) যুক্তিবিদ্যার সৌরভ যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান না কলা
  3. ঘ) যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান না কলা এ সম্পর্কে নিজস্ব মতামত।

এইচএসসি ব্যাচ 2021 যুক্তিবিদ্যা ১ম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

প্রিয় এইচএসসি 2021 সালের পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীরা। আপনারা যুক্তিবিদ্যা অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্নের নির্দেশনা অনুসরণ করে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সিকুয়েন্স অনুযায়ী উত্তর ডাউনলোড করে নিবেন।

উত্তরঃ

ভূমিকা :

যুক্তিবিদ্যা আমাদেরকে যথাযথ যুক্তি প্রয়ােগের কৌশল এবং বৈধ যুক্তি থেকে অবৈধ যুক্তি পার্থক্য করণের নিয়ম ও পদ্ধতি শিক্ষা দেয়। এ জটিল বস্তজগতে বুদ্ধিবৃত্তি সম্পন্ন চিন্তাশীল প্রাণী হিসেবে মানুষের পথ চলার শুরু থেকেই যুক্তিযুক্ত চিন্তার সূত্রপাত হয়েছে। জীবন ধারণ ও জীবন বিকাশের বিভিন্ন পর্যায়ে বিবিধ প্রতিকূল পরিবেশে সংগ্রামরত তখনই সে ব্যবহার করেছে তার যৌক্তিক চিন্তা। সুশৃংখল ও পদ্ধতিগত যৌক্তিক চিন্তা হলাে বিজ্ঞানভিত্তিক জ্ঞান। আর বিজ্ঞান ভিত্তিক জ্ঞান হলাে যুক্তিবিদ্যার জ্ঞান। যুক্তিবিদ্যা আমাদেরকে যথাযথ যুক্তি প্রয়ােগের কৌশল এবং বৈধ যুক্তি থেকে অবৈধ যুক্তি পার্থক্য করণের নিয়ম ও পদ্ধতি শিক্ষা দেয়। এ জটিল বস্তজগতে বুদ্ধিবৃত্তি সম্পন্ন চিন্তাশীল প্রাণী হিসেবে মানুষের পথ চলার শুরু থেকেই যুক্তিযুক্ত চিন্তার সূত্রপাত হয়েছে। জীবন ধারণ ও জীবন বিকাশের বিভিন্ন পর্যায়ে বিবিধ প্রতিকূল পরিবেশে সংগ্রামরত তখনই সে ব্যবহার করেছে তার যৌক্তিক চিন্তা। সুশৃংখল ও পদ্ধতিগত যৌক্তিক চিন্তা হলাে বিজ্ঞানভিত্তিক জ্ঞান। আর বিজ্ঞান ভিত্তিক জ্ঞান হলাে যুক্তিবিদ্যার জ্ঞান।

(ক) যুক্তিবিদ্যার ধারণাঃ-

মানব জ্ঞানের প্রাচীনতম শাখাগুলাের একটি হলাে যুক্তিবিদ্যা। পদ্ধতিগতভাবে এরিস্টটল থেকে যাত্রা শুরু করে গাণিতিক যুক্তিবিদ্যা ও অতিসাম্প্রতিক কালের কম্পিউটার লজিক পর্যন্ত এর পরিসর বিস্তৃত। যুক্তিবিদ্যা প্রতিটি বিষয়কে নির্ভুল, পদ্ধতিগত ও বাস্তবসম্মত হতে সহায়তা করে।যুক্তিবিদ্যার ইংরেজি প্রতিশব্দ | Logic শব্দটি উদ্ভূত হয়েছে গ্রিক শব্দ | Logos হতে Logos অর্থ হলাে চিন্তা বা শব্দ বা ভাষা। তাই উৎপতিগতভাবে হাক্তিবিদাকে ভাষা প্রকাশিত চিন্তার আলােচনা বলা হয়। আক্ষরিক অর্থে বাংলায়যুক্তিবিদ্যা বলতে আমরা বুঝি যুক্তির বিদ্যা বা যুক্তি সম্পকীয়ি বিজ্ঞান |

অর্থাৎ যে বিষয় পড়াশুনা করলে যুক্তি ও যুক্তির নিয়ম সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করা যায় তাই যুক্তিবিদ্যা |

এরিস্টটলের যুক্তিবিদ্যার ধারণা:

যুক্তিবিদ্যা হলাে একটি উপকরণ বা কৌশল যাকে যে কোনাে জ্ঞানের জন্য ব্যবহার করা যায়। তিনি বলেন, যে প্রক্রিয়ায় এক বা একাধিক যুক্তিবাক্য থেকে সিদ্ধান্ত হিসেবে একটি যুক্তিবাক্য প্রতিষ্ঠা করা যায় সে প্রক্রিয়ার আলােচনাই হলাে যুক্তিবিদ্যা | তিনি মনে করেন যে, নিরপেক্ষ যুক্তিবাক্যই হলাে সবচেয়ে মৌলিক | তিনি নিরপেক্ষ যুক্তিবাক্যেকে গুণ ও পরিমাণ অনুসারে চার ভাগে ভাগ করেন। তিনি যুক্তিবাক্যের বিরােধিতার চতুৰ্গ প্রতিষ্ঠা করেন। যে কোনাে জ্ঞানের জন্য ব্যবহার করা যায়। তিনি বলেন, যে প্রক্রিয়ায় এক বা একাধিক যুক্তিবাক্য থেকে সিদ্ধান্ত হিসেবে একটি যুক্তিবাক্য প্রতিষ্ঠা করা যায় সে প্রক্রিয়ার আলােচনাই হলাে যুক্তিবিদ্যা | তিনি মনে করেন যে, নিরপেক্ষ যুক্তিবাক্যই হলাে সবচেয়ে মৌলিক | তিনি নিরপেক্ষ যুক্তিবাক্যেকে গুণ ও পরিমাণ অনুসারে চার ভাগে ভাগ করেন। তিনি যুক্তিবাক্যের বিরােধিতার চতুৰ্গ প্রতিষ্ঠা করেন।

জে. এস. মিলের যুক্তিবিদ্যার ধারণা :

অবরােহ যুক্তিবিদ্যা প্রতিষ্ঠিত সত্যের আলােকে আমাদের সত্য অনুসন্ধানকে সামঞ্জস্যপূর্ণ করে এবং বিজ্ঞানের যুক্তিবিদ্যা বা আরােহ যুক্তিবিদ্যা সত্য সরবরাহ করে। মিল তার গ্রন্থে যুক্তিবিদ্যার সংজ্ঞায়। পরিচালনার জন্য এমন বিজ্ঞান যা বিচার বা প্রমাণের মাধমে জ্ঞাত সত্য থেকে অজ্ঞাত সত্যে উপণীত হওয়ার জন্য প্রয়ােজনীয় বুদ্ধিগত কাজ ও বৌদ্ধিক।

জোসেফ এর ধারণা :

ব্রিটিশ অধ্যাপক হােরেস উইলিয়াম ব্রিন্ডলেযােসেফ তার An Introduction to Logicবইয়ে যুক্তিবিদ্যার স্বরূপ নির্ধারণ করার চেষ্টা করেন। তিনি তার বইয়ের On The General Character Of The Enquiry নামক অধ্যায়ে যুক্তিবিদ্যাকে একটি বিজ্ঞান হিসেবে উপস্থাপন করেন | যােসেফ মনে করেন যে, যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান হিসেবে নিজস্ব আলােচ্য বিষয়ের মূলনীতি ব্যাখ্যা করে। যেমন, যুক্তিবিদ্যা সংজ্ঞার নিয়ম নিয়ে আলােচনা করে।

 আই. এম. কপির ধারণা :

আমেরিকান অধ্যাপক আরভিং মারমার কপি সম্পর্কে আলােচনা করেছেন। কপি মনে করেন যে, জীবনে প্রতিটি ক্ষেত্রে যুক্তিবিদ্যা ব্যবহার করা যায় | যুক্তিবিদ্যার পাঠ আমাদের শুদ্ধ যুক্তি থেকে অশুদ্ধ এগিয়ে নিয়ে যায় এবং আমাদের আগ্রহের যেকোনাে বিষয় বুঝতে সাহায্য করে। যুক্তিবিদ্যা আমাদের বুদ্ধিগত যােগ্যতাকে প্রসারিত করে এবং বাস্তব করে যুক্তি গঠনে সাহায্য করে।

 (খ) বিজ্ঞান ও কলার বৈশিষ্ট্য:

বিজ্ঞান :যে জ্ঞানশাখা সুবিন্যস্ত ও সুশৃঙ্খল প্রক্রিয়ায় বিশেষ কোনাে সত্য বা ঘটনার অন্তর্নিহিত নিয়ম আবিষ্কার করে, তাকে বিজ্ঞান বলে। যেমন- পদার্থবিদ্যা বিভিন্ন পদার্থের বৈশিষ্ট্য ও ক্রিয়া প্রত্যক্ষ করে এবং পরীক্ষণ প্রক্রিয়ায় সেগুলােকে বিশ্লেষণ করে কতগুলাে সাধারণ নিয়মের আবিষ্কার করে। এসব সাধারণ বৈশিষ্ট্য ও পক্রিয়াকে ব্যাখ্যা করে। এভাবে প্রত্যেক বিজ্ঞানই এসব সাধারণ নিয়মের সাহায্যে প্রকৃতির বিশেষ বিশেষ বিভাগের বস্তু বা ঘটনা সম্পর্কেসুনিশ্চিত ও সুশৃঙ্খল জ্ঞান দান করে থাকে। তাহলে দেখা যাচ্ছে যে, বিজ্ঞানের কাজ হলাে বিষয় বা বস্তু সম্পর্কে জ্ঞান দান করা। বিজ্ঞানের লক্ষ্য হলাে ব্যবহারিক ও পরিপূর্ণ জ্ঞান অনুসন্ধান।

কলা: রীতিনীতি শিক্ষা দেয়। অর্থাৎ অর্জিত জ্ঞানের দক্ষতা বা প্রায়ােগিক কুশলতাই হলাে কলাবিদ্যা । যেমন : চারুকলা শিক্ষা দেয় কীভাবে চিত্র আকতে হয়। নৌবিদ্যা আমাদের শিক্ষা দেয় কিভাবে নৌযান পরিচালনা করতে হয়। চিকিৎসাবিদ্যা শিক্ষা দেয় কিভাবে ওষধ প্রয়ােগ করে রােগ সারাতে হয়। এখন দেখা যাচ্ছে যে প্রথমত, কলাবিদ্যা বলতে বুঝায় কর্ম সম্পাদনের কৌশল। দ্বিতীয়ত:- কলাবিদ্যা বলতে বুঝায় দক্ষতা ও পারদর্শিতা | অর্থাৎ এ ক্ষেত্রে প্রায়ােগিক কুশলতাই হলাে কলাবিদ্যা। কলার মূলকথা হলাে সৃজনশীলতা , বর্তমান অবস্থার পরিবর্তন আনয়ন। সৃজনশীল কাজে নৈপুন্য উৎপাদনের জন্য বিশেষ বিশেষ নিয়ম বা পদ্ধতি অনুসরণ করতে হয়। এ পদ্ধতি বা নিয়মও কলার অন্তর্গত।

(গ) যুক্তিবিদ্যার স্বরূপ -যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান না কলা:

বিজ্ঞান হিসেবে যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞানকে অনেক ভাবে শ্রেণিকরণ করা যায়। যেমন-বস্তুগত বিজ্ঞান যা বস্তুসত্তার প্রকৃতি নিয়ে আলােচনা করে এবং আকারগত বিজ্ঞান যা বিষয় বা বস্তুর আকার নিয়ে আলােচনা করে। বিষয়বস্ত আলােচনা অন্যদিকে যে বিজ্ঞান কোনাে আদর্শকে মানদন্ড তাকে আদর্শনিষ্ঠ বিজ্ঞান বলে।

যেমন- নীতিবিদ্যা, নীতিবিদ্যার আদর্শ হলাে উত্তম বা ভালাে (Good)। অন্যভাবে আবার বিজ্ঞানকে দুই ভাগে ভাগ করা যায়; যথা- বর্ণনাধর্মী বিজ্ঞান ও ব্যবহারিক বিজ্ঞান। সাধারণভাবে বলা যায় বিষয়নিষ্ঠ বিজ্ঞানই হলাে বর্ণনাধর্মী বিজ্ঞান করে এবং আকারগত বিজ্ঞান যা বিষয় বা বস্তুর আকার নিয়ে আলােচনা করে। বিষয়বন্ত আলােচনা যথা-বিষয়নিষ্ঠ বিজ্ঞান ও আদর্শনিষ্ঠ বিজ্ঞান।

যে বিজ্ঞান বস্তুর উৎপত্তি, স্বরূপ, বিকাশ এবং যথার্থ | যেমন – প্রাণিবিদ্যা প্রাণিবিদ্যা প্রাণীর উৎপত্তি, প্রকৃতি, আচরণ , বিকাশ ইত্যাদির যথাযথ ব্যাখ্যা ও বর্ণনা দেওয়ার চেষ্টা করে। যায়; যথাবর্ণনাধ্বী বিজ্ঞান ও ব্যবহারিক বিজ্ঞান। সাধারণভাবে বলা যায় বিষয়নিষ্ঠ বিজ্ঞানই হলাে বর্ণনাধর্মী বিজ্ঞান। কলাবিদ্যা হিসেবে যুক্তিবিদ্যা : যুক্তিবিদ অলড্রিচ মনে করেন যে, যুক্তিবিদ্যা কেবল কলাবিদ্যা। কলাবিদ্যা হিসেবে যুক্তিবিদ্যার কয়েকটি বৈশিষ্ট্য নিম্নে তুলে ধরা হলাে :

১. যুক্তিবিদ্যা তার নিজস্ব বিষয়বস্তু সম্পর্কে অত্যন্ত যত্নশীল এবং সঠিক চিন্তনের দাবী রাখে এবং অন্য বিষয় পাঠে অনুরূপ যত্ৰশীলতার অভ্যাস গড়ে তুলতে আমাদেরকে সহায়তা করে।

২. যুক্তিবিদ্যা বৈধ যুক্তির সাধারণ নিয়মাবলি সম্পর্কে আমাদের জ্ঞানদান করে এবং এর ফলে আমরা নিজের ও অন্যের যুক্তির যথার্থতা পরীক্ষা করে দেখতে পারি। যুক্তি প্রদান ও যুক্তি বিচার করার ক্ষেত্রে আমাদেরকে নিয়মগুলাে ব্যবহার করতে হয়।

৩. যুক্তিবিদ্যা আমাদেরকে ভাষাগত ভ্রান্তি সম্পর্কে সচেতন করে তােলে এবং এর ফলে যুক্তি প্রদর্শন এবং অনেক ক্ষেত্রে যুক্তির ভুল এড়াতে পারি। সর্বোপরি, যুক্তিবিদ্যা যুক্তি প্রদর্শনে বা প্রয়ােগে আমাদের দক্ষতা বৃদ্ধি করে। বিশেষ করে, প্রতীকী যুক্তিবিদ্যার ক্ষেত্রে তাত্তিক জ্ঞান প্রাপ্তির পাশাপাশি যুক্তির বৈধতা ও অবৈধতা সম্পর্কিত প্রচুর অনুশীলনী চর্চার ফলে এটি বাস্তব যুক্তি প্রয়ােগে আমাদের দক্ষতা বৃদ্ধি করে। যুক্তিবিদ্যার ব্যবহারিক মূল্যের কারণেই যুক্তিবিদ্যাকে কলাবিদ্যা বলে অভিহিত করা হয়।

 (ঘ) যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান না কলা -এ সম্পর্কে আমার নিজস্ব মতামত:

যুক্তিবিদ্যা একটি বিজ্ঞান। কারণ এটি নির্ভুল চিন্তার নিয়মাবলি নির্দেশ করে এবং শুদ্ধ চিন্তা কাকে বলে সেটি শিক্ষা দেয়। আর সেই সাথে এটি একটি কলাবিদ্যাও। কারণ যুক্তিবিদ্যা শুধুমাত্র চিন্তা বা যুক্তির সাধারণ নিয়মাবলি নির্দেশ করেই ক্ষান্ত হয় না। কলা-কৌশলও দান করে। তাই যুক্তিবিদ্যায় যেমন রয়েছে তাত্ত্বিক দিক, তেমনি রয়েছে এর ব্যবহারিক বা প্রায়ােগিক দিক। অতএব, যুক্তিবিদ্যাকে বিজ্ঞান ও কলা উভয় হিসেবে গণ্য করা যায়।

উপসংহার : নিয়ম-কানুন শিক্ষা দেয়, তেমনি সেগুলাে প্রয়ােগের পদ্ধতিও শেখায়। তাই যুক্তিবিদ্যা যেমন বিজ্ঞান, তেমনি কলাবিদ্যা। বিজ্ঞান হলাে কোনাে নিদিষ্ট নিয়ম অনুসারে প্রকৃতির কোনাে একটি বিষয়কে পদ্ধতিগতভাবে জানা। জ্ঞান অর্জনই হলাে বিজ্ঞানের মূল লক্ষ্য। কলাবিদ্যা হলাে কোনাে বিশেষ উদ্দেশ্য সাধনের জন্য আমাদের অর্জিত জ্ঞানকে বাস্তবক্ষেত্রে কাজে লাগানাে | কলার কাজ হলাে কাজে দক্ষতা অর্জন করা। যুক্তিবিদ্যা একটি জ্ঞানশাখা হিসেবে আমাদেরকে তাত্ত্বিক জ্ঞান দেয় এবং এ জ্ঞানের চর্চার মাধ্যমে আমরা বিশেষ দক্ষতা অর্জন করি। তাই, যুক্তিবিদ্যা বিজ্ঞান ও কলা উভয়ই।

আরও দেখুনঃ

এইচএসসি ইতিহাস ১ম সপ্তাহ এসাইনমেন্ট উত্তর ব্যাচ-2021 । HSC পরীক্ষার্থী -2021 অ্যাসাইনমেন্ট

2021 সালের এইচএসসি পৌরনীতি ও সুশাসন  [১ম সপ্তাহ] এসাইনমেন্ট উত্তর। HSC পরীক্ষার্থী ব্যাচ -2021 অ্যাসাইনমেন্ট

এইচএসসি ব্যাচ-2021 অর্থনীতি ১ম সপ্তাহ এসাইনমেন্ট উত্তর। HSC Exam Batch-2021 অ্যাসাইনমেন্ট

এইচএসসি সমাজবিজ্ঞান এসাইনমেন্ট উত্তর 2021। HSC পরীক্ষার্থী ব্যাচ 2021 [২য় সপ্তাহ] অ্যাসাইনমেন্ট

সকল পোস্টের আপডেট পেতে ‍নিচের ফেসবুক আইকনে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেইজে জয়েন করুন।

Check Also

ক্ষুদ্র জাতিসত্তার সাংস্কৃতিক উৎসবের পরিচয়। ৭ম শ্রেণি বাংলা [৩য় সপ্তাহ] এসাইনমেন্ট উত্তর

সপ্তম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট এর নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। প্রিয় সপ্তাহ শ্রেণীর …