তাওহীদ বিশ্বাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য। ৬ষ্ঠ শ্রেণি ৬ষ্ঠ সপ্তাহ ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা

৬ষ্ঠ শ্রেণীর ২০২২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ৬ষ্ঠ সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। যার প্রশ্ন ইতোমধ্যে আমরা আমাদের ওয়েবসাইট allexamresult.com প্রকাশ করেছি। আপনি যদি ৬ষ্ঠ শ্রেণীর 2022 শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থী হয়ে থাকেন তাহলে এই পোষ্ট টি আপনার জন্য। কেননা আপনি আমাদের এই পোষ্টের মাধ্যমে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ৬ষ্ঠ সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। যেহেতু আমরা আমাদের বিষয় ভিত্তিক অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী দ্বারা প্রথম সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর তৈরি করেছি। তাই শিক্ষার্থীরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এসাইনমেন্ট এর নমুনা উত্তর টি ডাউনলোড করে খুব সহজেই অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করে নিতে পারবে।

ষষ্ঠ শ্রেণীর এমন অনেক শিক্ষার্থী রয়েছে যারা ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন পেয়েছেন কিন্তু উত্তর পাননি। তাদের জন্য আমাদের আজকের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের উত্তরের এই পোষ্ট। ফলে শিক্ষার্থীরা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে তাদের কাঙ্ক্ষিত ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টের প্রশ্ন সহ এর উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। যা শিক্ষার্থীদের নির্ভুলভাবে এসাইনমেন্ট তৈরি করে বিদ্যালয় জমা প্রদান করতে সহযোগিতা করবে। ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর পেতে নিচের অংশ ভালভাবে পড়ুন।

৬ষ্ঠ শ্রেণি ৬ষ্ঠ সপ্তাহ ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এসাইনমেন্ট প্রশ্ন 2022

প্রিয় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর 2022 শিক্ষা বর্ষের শিক্ষার্থীরা। তোমরা তোমাদের সুবিধার্থে উত্তরের সাথে সাথে আমরা প্রশ্ন তুলে ধরেছি। যাতে করে শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন দেখে প্রশ্ন বুঝে এবং এর নং অনুযায়ী উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারে। যেহেতু বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রধান লক্ষ্য হল এসাইনমেন্ট এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তক এর সাথে সম্পৃক্ত করা। তাই প্রত্যেক শিক্ষার্থীর উচিত প্রতিটি অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন ভালোভাবে বুঝে এসাইনমেন্ট তৈরি করা। এজন্য আমরা ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট এর উত্তরে পাশাপাশি এর প্রশ্ন তুলে ধরেছে। ফলে শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন বুঝে এবং আমাদের নমুনা উত্তরটি ভালোভাবে পড়ে এর সাথে সংযোজন-বিয়োজন করে এসাইনমেন্ট তৈরি করে নিতে পারবে। নিচে প্রশ্ন দেওয়া হল।

অ্যাসাইনমেন্ট (শিরােনামসহ)ঃ

তাওহিদে বিশ্বাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য

শিখনফল/বিষয়বস্তুঃ

তাওহিদ (একত্ববাদ)-এর ধারণা, তাৎপর্য ও তাওহিদে বিশ্বাসের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে পারবে

অ্যাসাইনমেন্ট প্রণয়নের নির্দেশনাঃ

  1. বিশ্বজগতের বিভিন্ন সৃষ্টি সম্পর্কে চিন্তা করে তার আলােকে তাওহিদের ধারণা বর্ণনা করতে হবে
  2. তাওহিদে বিশ্বাসের প্রয়ােজনীয়তা ব্যাখ্যা করতে হবে
  3. তাওহিদের তাৎপর্য বিশ্লেষণ করতে হবে

৬ষ্ঠ শ্রেণী ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা ৬ষ্ঠ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর 2022

৬ষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা নিশ্চয়ই ভাবছে আমরা ইতোমধ্যে ৬ষ্ঠ সপ্তাহের প্রশ্ন পেয়েছি কিন্তু উত্তর কোথায়? তাদের সমস্ত ভাবনার অবসান ঘটিয়ে আমরা আমাদের আর্টিকেল এর এই পর্বে ৬ষ্ঠ সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর প্রকাশ করেছি। শিক্ষার্থীদের অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ৬ষ্ঠ শ্রেণি ৬ষ্ঠ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এসাইনমেন্ট নমুনা উত্তরটি ভালোভাবে পড়ে বুঝে নিজে নিজে অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করার জন্য অনুরোধ করা হলো। এত করে শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশ ঘটবে। তাই শিক্ষার্থীরা চলো আর দেরি না করে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ৬ষ্ঠ সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর দেখে নেয়া যাক। যা আমাদের ওয়েবসাইটের বিষয়ভিত্তিক অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী দ্বারা তৈরি করা হয়েছে।

উত্তরঃ

 

তাওহীদ বিশ্বাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য।

তাওহিদের ধারণা বর্ণনাঃ

তাওহিদ আরবি শব্দ। বাংলা ভাষায় একে বলা হয় একত্ববাদ। আল্লাহ তায়ালাকে এক ও অদ্বিতীয় সত্তা হিসেবে বিশ্বাস করাকে তাওহিদ বা একত্ববাদ বলা হয়। আল্লাহ তায়ালাই একমাত্র সৃষ্টিকর্তা, পালনকর্তা, রিযিকদাতা। তিনি ব্যতীত ইবাদতের যােগ্য কেউ নেই। তিনিই হলেন একমাত্র ইলাহ। আল্লাহ তায়ালার প্রতি এরূপ বিশ্বাসই হলাে তাওহিদ।

তাওহিদে বিশ্বাসের প্রয়ােজনীয়তা ব্যাখ্যাঃ

তাওহীদ হল আকাইদের সর্বপ্রথম ও সর্বপ্রধান বিষয় হল তাওহীদ। তাওহীদ শব্দের অর্থ হল “একত্ববাদ”। মহান আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় এবং তার কোন শরিক নেই, মনে প্রাণে বিশ্বাসের নাম হল তাওহীদ। ইসলামের মূল ভিত্তিই হলাে তাওহীদ। মানবজীবনে তাওহিদ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, যার উপর ইহকাল ও পরকালের কল্যাণ-অকল্যাণ, সফলতা-ব্যর্থতা নির্ভরশীল। অর্থাৎ মুসলিম হওয়ার পূর্ব শর্ত হল আল্লাহর প্রতি ইমান আনা। পবিত্র কুরআনে মহান আল্লহ বলেনঃ “আর ইবাদত কর আল্লাহর, শরিক করাে না তার সাথে অপর কাউকে”। [সুরা নিসা : ৩৬] সুতরাং তাওহীদে বিশ্বাস করা মানব জাতির জন্য অত্যান্ত প্রয়ােজন।

নিচে তাওহীদে বিশ্বাস স্থাপন করার গুরুত্ব আলােচনা করা হলােঃ

  • আল্লাহ তাআলা নবি-রাসুলগণকে পাঠিয়েছেন তাঁর একত্ববাদের দিকে আহবান করার জন্য। কুরআনের অধিকাংশ সুরায় তাওহিদের প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।
  • আল্লাহর প্রতি ঈমান আনার নামই তাওহীদ। তাই তাওহীদে বিশ্বাসের গুরুত্ব অপরিসীম। নামাজ, রোজা, হজ্জ, যাকাত সব কিছুর মূল ভিত্তিই তাওহীদ। তাওহীদে বিশ্বাসী মানুষ সকল প্রকার অন্যায় ও পাপ কাজ থেকে নিজেকে বিরত রাখে এই ভেবে যে, পরকালে আল্লাহর নিকট সকল কাজের হিসাব দিতে হবে। তাই তাওহীদে বিশ্বাস গুরুত্ব অপরিসীম।
  • ভ্রাতৃত্ববােধ বৃদ্ধিতে তাওহীদে গুরুত্ব অনেক। একত্ববাদে মানুষকে এক জাতিত্ব বােধ এনে দেয়। অপরদিকে মানুষে বিভেদ সৃষ্টি করে। তাওহীদ বিশ্বাসী মানুষ বিপদ আপদে, হতাশ না হয়ে আল্লাহর উপর ভরসা রাখে।

তাওহিদের তাৎপর্য বিশ্লেষণঃ

আমরা আমাদের চারপাশে নানারকম জিনিস দেখতে পাই। সুন্দর সুন্দর ফুল-ফল, গাছপালা, তরুলতা, পশু-পাখি ইত্যাদি এছাড়া রয়েছে নদীনালা, পাহাড়-পর্বত, বন-জঙ্গল, সাগর-মহাসাগর। আরও আছে বিশাল আকাশ, চন্দ্র-সূর্য, গ্রহ-নক্ষত্র ইত্যাদি৷ আমরা খালি চোখে দেখতে পাই না এমন অনেক বস্তু এবং প্রাণীও রয়েছে। এসব কিছুই সৃষ্টিজগতের অন্তর্গত। এগুলাে সৃষ্টিকর্তা ছাড়া নিজ থেকে সৃষ্ট হয়নি। নিশ্চয়ই একজন স্রষ্টা এগুলাে সৃষ্টি করেছেন। তিনি হলেন মহান আল্লাহ। তিনিই সবকিছু সৃষ্টি করেছেন।

তাঁর কোনাে সাহায্যকারীর প্রয়ােজন হয়নি। তিনি ‘হও’ (কুন) বলার সাথে সাথেই সবকিছু সৃষ্টি হয়ে যায়। বিশ্বজগতের সবকিছুই তিনি মানুষের কল্যাণের জন্য সৃষ্টি করেছেন। মানুষ জ্ঞান-বুদ্ধি প্রয়ােগ করে এগুলাে থেকে উপকার লাভ করে। সুতরাং মানুষের উচিত তার স্রষ্টার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা। এক আল্লাহ তায়ালার আনুগত্য ও ইবাদত করা। তাঁর ইবাদতে অন্য কাউকে শরিক করা যাবে না। এভাবে মহান আল্লাহর তাওহিদ বা একত্ববাদের প্রতি অনুগত হলে মানুষ দুনিয়া ও আখিরাতের জীবনে কল্যাণ ও সফলতা লাভ করতে পারে।

তাওহিদ বিশ্বাসের গুরুত্ব বিশ্লেষণঃ

তাওহীদ হল আকাইদের সর্বপ্রথম ও সর্বপ্রধান বিষয় হল তাওহীদ। তাওহীদ শব্দের অর্থ হল “একত্ববাদ”। মহান আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় এবং তার কোন শরিক নেই, মনে প্রাণে বিশ্বাসের নাম হল তাওহীদ। ইসলামের মূল ভিত্তিই হলাে তাওহীদ। মানবজীবনে তাওহিদ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, যার উপর ইহকাল ও পরকালের কল্যাণ-অকল্যাণ, সফলতা-ব্যর্থতা নির্ভরশীল। অর্থাৎ মুসলিম হওয়ার পূর্ব শর্ত হল আল্লাহর প্রতি ইমান আনি।

নিচে তাওহীদে বিশ্বাস স্থাপন করার গুরুত্ব আলােচনা করা হলােঃ
১) আল্লাহ তাআলা নবি-রাসুলগণকে পাঠিয়েছেন তার একত্ববাদের দিকে আহবান করার জন্য। কুরআনের অধিকাংশ সুরায় তাওহিদের প্রতি গুরুত্বারােপ করা হয়েছে।
২) আল্লাহর প্রতি ঈমান আনার নামই তাওহীদ। তাই তাওহীদে বিশ্বাসের গুরুত্ব অপরিসীম। নামাজ, রোজা, হজ্জ, যাকাত সব কিছুর মূল ভিত্তিই তাওহীদ।
৩) তাওহীদে বিশ্বাসী মানুষ সকল প্রকার অন্যায় ও পাপ কাজ থেকে নিজেকে বিরত রাখে এই ভেবে যে, পরকালে আল্লাহর নিকট সকল কাজের হিসাব দিতে হবে। তাই তাওহীদে বিশ্বাস গুরুত্ব অপরিসীম।
৪) ভ্রাতৃত্ববােধ বৃদ্ধিতে তাওহীদে গুরুত্ব অনেক। একত্ববাদে বিশ্বাস মানুষকে এক জাতিত্ব বােধ এনে দেয়। অপরদিকে শিরক মানুষে মানুষে বিভেদ সৃষ্টি করে। তাওহীদে বিশ্বাসী মানুষ বিপদ আপদে, হতাশ না হয়ে আল্লাহর উপর ভরসা রাখে।
৫) আখেরাতে চিরস্থায়ী সুখ ও জান্নাত লাভ করতে তাওহিদের গুরুত্ব অপরিসীম। নবী করিম (সঃ) বলেনঃ “যে ব্যক্তি আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ বলবে তার জন্য আল্লাহ জাহান্নাম হারাম করে দিবেন।

আরও দেখুনঃ

৬ষ্ঠ শ্রেণী [৬ষ্ঠ সপ্তাহ] তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি এসাইনমেন্ট উত্তর 2022। PDF উত্তর ডাউনলোড

Check Also

HSC English (New) Short Syllabus 2022- Download the (Updated) PDF File

Again, HSC Exam Batch 2022 English short syllabus has been changed and published. The English …