করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় তুমি তোমার  দৈনন্দিন পড়ালেখার ঘাটতি পূরণে সংসদ  টেলিভিশনে প্রচারিত ক্লাসসমূহ অনুসরণ করে থাকো

৬ষ্ঠ শ্রেণীর 2021 শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ১৭ তম সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। যার প্রশ্ন ইতোমধ্যে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রকাশ করেছি। আপনাদের ১৭ তম সপ্তাহের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন বিশ্লেষণ করে প্রতিটি প্রশ্নের আলাদা আলাদা ভাবে উত্তর প্রদান করছি। আপনি আপনার তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। উত্তর পেতে নিচের অংশ ভালভাবে পড়ুন।

৬ষ্ঠ শ্রেণি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি [১৭তম সপ্তাহ] অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

উত্তর এর শুরুতে প্রশ্ন এবং প্রশ্নের ছবি দেয়া আছে এবং পরবর্তীতে তার নিচে উত্তর প্রকাশ করা হয়েছে। যাতে করে শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন দেখে নির্ভুলভাবে প্রতিটি উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারে।

অ্যাসাইনমেন্টঃ

“করােনায় স্কুল বন্ধ থাকায় তুমি তােমার  দৈনন্দিন পড়ালেখার ঘাটতি পূরণে সংসদ  টেলিভিশনে প্রচারিত ক্লাসসমূহ অনুসরণ করে থাকো। এছাড়া তুমি তােমার স্কুল পরিচালিত অনলাইন ক্লাসসহ অন্যান্য বিশিষ্ট শিক্ষকের ক্লাসও দেখে থাকো।” তুমি এসব ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে কোন কোন ডিভাইস ব্যবহার করাে? তার একটি তালিকা তৈরি করে ব্যবহার প্রক্রিয়া লিখ।

নির্দেশনাঃ

শিরােনাম, বিষয়বস্তু উপস্থাপন, পরিশিষ্ট (প্রতিবেদন প্রস্তুতকারীর নাম, রােল, প্রতিবেদন তৈরির সময়, তারিখ ও স্থান)

উত্তরঃ

তারিখ: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রি.

বরাবর,

প্রধান শিক্ষক,

নিজের প্রতিষ্ঠান এর নাম ও ঠিকানা

বিষয় :করােনা কালীন সময়ে অনলাইন ক্লাস করতে প্রযুক্তির ব্যবহার।

জনাব,

বিনতি নিবেদন এই যে, আপনার আদেশ নং বা.উ.বি. ৩৫৫-১ তারিখ ২১/৯/২০২১ অনুসারে উপরােক্ত বিষয়ের উপর আমার প্রতিবেদনটি নিন্মে পেশ করলাম।

করােনা মহামারিতে প্রযুক্তির ব্যবহারঃ

করােনা মহামারীতে সারা পৃথিবী স্থবীর হয়ে পড়েছে। অফিস-আদালত, কলকারখানা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সহ সর সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠান কার্যত লকডাউন, মহামারির এই সময়ে করােনা নিয়ন্ত্রনে সবাইকে বাসায় থাকতে হচ্ছে। বাসায় থেকেই প্রযুক্তির কল্যানে সরকারি-বেসরকারি সহ বিভিন্ন অফিসের কাজ বাসায় বসেই করা সম্ভব হচ্ছে। গত ০৮ ই মার্চ দেশে করােনা ভাইরাস আক্রান্তের সন্ধানপাওয়ার পর গত ২৬ মার্চ থেকে সাধারন ছুটি ঘােষনা করে সরকার বিভিন্ন ধাপে ধাপে সাধারন ছুটি বাড়িয়েও জনগনের অসচেতনতা এবং স্বাস্থবিধি না মানার কারনে করােনার প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলছে। কতদিন এই মহামারি চলবে বা কবে নাগাদ শেষ হবে তার হদিস কেউ জানেনা। সবাই এক রকম ঘরবন্দী জীবন যাপন করছে। কিন্তু তাই বলে জীবন তাে থেমে থাকবে না।

বর্তমান আধুনিক প্রযুক্তির কল্যানে ঘরে বসেই বিভিন্ন অত্যাধুনিক সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে , যা ব্যবহার করে কর্মস্থলে উপস্থিত না হয়েই অফিস – আদালত পরিচালমা মিটিং , শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা অনলাইন শপিং, ই-কমার্স, সমাজিক যােগাযােগ ছাড়াও বহু সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে। ইন্টারনেট প্রযুক্তি : ইন্টারনেটের কল্যানে বর্তমানে বেশিরভাগ অনলাইন প্রযুক্তি পরিচালিত হয়। যার মাধ্যমে সামাজিক যােগাযােগ থেকে শুরু করে, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে ও কাজ করা যাচ্ছে। বর্তমানে করােনা মহামারীতে ইন্টারনেটের ব্যাবহার ৫০ শতাংশ বেড়ে গেছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রযুক্তির ব্যবহার :

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনলাইনে ক্লাস কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে শিক্ষাখাতে প্রযুক্তির ব্যবহার করা সম্ভব হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে এই পদ্ধতিতে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনায় মনোযােগী হচ্ছে। এই ভার্চুয়াল ক্লাস কার্যক্রমে যারা যেতে পারছে না। তাদের জন্য ক্লাস গুলাের ভিডিও আপলােড দিচ্ছে যাতে পরবর্তীতে এগুলাে দেখা যায়। করােনার এই পরিস্থিতির পরও অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমে যুক্ত রাখা যাবে শিক্ষর্থীদের।

আমার ব্যবহৃত ডিভাইস গুলাের আলােচনা করা হলাে:

টেলিভিশন,মােবাইল ফোন, কম্পিউটার…

টেলিভিশন:

পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই টেলিভিশন ব্যবহার করা হয়। মূলত বিনাদেনের মাধ্যম হিসেবে টেলিভিশন ব্যবহার করা হয়। আমাদের দেশে টেলিভিশন চালু হয়েছে আজ থেকে প্রায় আটচল্লিশ বছর আগে। বিনাদেনের পাশাপাশি আমাদের দেশে টেলিভিশনে গণশিক্ষা, নিরক্ষরতা দূরীকরণ, পরিবারপরিকল্পনার মতাতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলাতে প্রচার করে থাকে।

মােবাইল ফোন:

প্রতিদিন দীর্ঘ সময় ব্যবহৃত ইলেকট্রনিক ডিভাইস গুলির মধ্যে মােবাইল ফোন অন্যতম। মােবাইলের ব্যাবহার এখন শুধুমাত্র যােগাযােগতেই থেমে নেই শপিং, ব্যাংকিং, অনলাইন পড়াশােনা, বিনােদন সব কিছুতেই মােবাইল ফোনের ব্যাবহার ।মাবাইল ফোনের ব্যবহার এখন আর সমাজের নির্দিষ্ট কোন স্তরে সীমাবদ্ধ নেই। সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছেই মােবাইল ফোন আজ একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তথা প্রয়ােজনীয় বস্তু। উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত থেকে নিম্নবিত্ত সব পরিবারেই মােবাইল ফোনের ব্যবহার ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষ প্রয়ােজনীয় ও আকর্ষণীয় সকল সুবিধা সমাজের সব স্তরের মানুষের সামর্থ্যের মধ্যে পাওয়া যায় বলে অধিকাংশ মানুষই মােবাইল ফোন ব্যবহার করে থাকেন। ভবিষ্যতে মােবাইল ফোনের ব্যাবহার আরও বাড়বে বলে আশা করা যায়।

কম্পিউটার:

কম্পিউটারের ব্যাবহার আমাদের দেশে সমস্ত ক্ষেত্রে, ব্যাক্তিগত ও সামাজিক জীবনে নিয়ে এসেছে এক বিরাট পরিবর্তন। কম্পিউটার কর্মজীবনে ব্যাবহারিক ক্ষেত্রে খুলে দিয়েছে একের পর এক নতুন দিগন্ত। একমুহূর্তে নির্ভুল ভাবে করতে পারে কম্পিউটার। দৈনন্দিন জীবনে সবকাজেই রয়েছে কম্পিউটারের ব্যাবহার।ব্যাংকের কাজ নির্ভুল ও তাড়াতাড়ি করে দেয়। শেয়ার বাজারকে নির্ভুল প্রদর্শন করে। স্কুল, কলেজ অফিস আদালত সমস্ত ক্ষেত্রে তথ্য জমার কাজ করে।চিকিৎসা বিজ্ঞানের ক্ষেত্রেও কম্পিউটারের ব্যাবহার উল্লেখযােগ্য।মুদ্রণ শিল্পে এক যুগান্তকারী পরিবর্তন এনে দিয়েছে কম্পিউটার।

কম্পিউটারে উপলব্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা গােটা পৃথিবীকে এনে দিয়েছে হাতের মুঠোয়। শুধু কাজের ক্ষেত্রেই কম্পিউটারের ব্যাবহার সীমাবদ্ধ নয়।কম্পিউটারের প্রমােদ মূল্যও যথেষ্ট। অনলাইনে গেম খেলা, গান শােনা, সিনেমা দেখা প্রভৃতি কাজে কম্পিউটার ব্যাবহার করে থাকি আমরা। টিকিট বুকিং, পরীক্ষার ফল প্রকাশ থেকে পাত্র পাত্রী নির্বাচন, অপরাধী খোঁজা সবকিছুতেই কম্পিউটার -তাই নিঃসন্দেহে বলা যায় আধুনিক সভ্যতা কম্পিউটার ছাড়া অচল। এসকল ডিভাইস ব্যবহার করে আমিসংসদ টিভিতে ক্লাসগুলাে করেছি

প্রতিবেদকের নামঃ

প্রতিবেদকের ঠিকনাঃ

প্রতিবেদন তৈরির তারিখ ও সময়ঃ

See More: 

৬ষ্ঠ শ্রেণি বাংলা [১৭তম সপ্তাহ] অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান। ৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট 2021

Check Also

বাংলাদেশের লােকশিল্পের বিলুপ্তির কারণ এবং লােকশিল্প সংরক্ষণের উপায়।

৮ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট এর নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। প্রিয়  ৮ম শ্রেণীর …