দুটি বিনিয়োগ ক্ষেত্র যথাক্রমে ‘অরণ্য’ ও ‘অনন্য’। ‘অরণ্য’ হতে বিগত ৪ বছরের অর্জিত আয়ের হার যথাক্রমে ২০%, ২৫ %, ১০% ও ৫% এবং ‘অনন্য’ হতে বিগত ৪ বছরের আয়ের হার যথাক্রমে ১০%, ১৫%, ১৮% ও ১৭%।

এসএসসি 2021 সালের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের এই পোষ্টের মাধ্যমে এসএসসি 2021 সালের ষষ্ঠ সপ্তাহের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন এবং উত্তর দুটোই একসাথে প্রকাশ করেছি। ফলে ছাত্র-ছাত্রীরা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে একসাথে এসেছি 2021 সালের ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তম এর প্রশ্ন এবং এর নির্ভুল ও পূর্ণাঙ্গ উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারেন। ষষ্ঠ সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর পেতে নিচের অংশ ভালভাবে পড়ুন।

এসএসসি 2021 ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন

ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে উত্তরের পূর্বে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তম এর প্রশ্ন দেওয়া হল। যাতে করে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রশ্নের নং অনুযায়ী এবং প্রশ্ন বুঝে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে অ্যাসাইনমেন্টের নির্ভুল উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারেন। নিতে এসএসসি 2021 ষষ্ঠ সপ্তাহের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং অ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন দেওয়া হল।

প্রশ্নঃ

অ্যাসাইনমেন্টঃ

বিনিয়োগ ক্ষেত্র নির্বাচনে আদর্শ বিচুতির মানের প্রভাব বিশ্লেষণ।

নির্দেশনাঃ

  1. * উদাহরণসহ ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তার ধারণী ব্যাখ্যা করতে হবে
  2. *উদাহরণসহ ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তার পার্থক্য ব্যাখ্যা করতে হবে
  3. *ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ও বিনিয়ােগকারীর দৃষ্টিকোণ থেকে ঝুঁকির শ্রেণি ব্যাখ্যা করতে হবে
  4. *নিম্নের তথ্যের আলােকে আদর্শ বিচ্যুতির মান নির্ণয় করে অপেক্ষাকৃত কম ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়ােগ ক্ষেত্র নির্বাচনে আদর্শ বিচ্যুতির মানের প্রভাব বিশ্লেষণ করতে হবে ।

তথ্যঃ

দুটি বিনিয়ােগ ক্ষেত্র যথাক্রমে ‘অরণ্য’ ও ‘অনন্য’। ‘অরণ্য’ হতে বিগত ৪ বছরের অর্জিত আয়ের হার যথাক্রমে ২০%, ২৫ %, ১০% ও ৫% এবং ‘অনন্য’ হতে বিগত ৪ বছরের আয়ের হার যথাক্রমে ১০%, ১৫%, ১৮% ও ১৭%।

এসএসসি 2021 ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তাহ এসাইনমেন্ট উত্তর

আপনি কি এসএসসি 2021 সালের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট এর পূর্ণাঙ্গ এবং নির্ভুল উত্তর চাচ্ছেন? তাহলে চলুন এসএসসি 2021 ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট এর পূর্ণাঙ্গ উত্তর দেখে নেয়া যাক। আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে উত্তর সংগ্রহ করে কিছুটা পরিবর্তন ও পরিবর্ধন করে অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করে নিবেন। এতে বেশি নম্বর পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। নিতে এসেছে 2021 ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ষষ্ঠ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর দেওয়া হল।

উত্তরঃ

ক) ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তার ধারণাঃ

ব্যবসায়ের আর্থিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাকে এককথায় ঝুঁকি বলা হয়। জারিফ দশম শ্রেণির ছাত্র। সে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পাওয়ার প্রত্যাশা করে। আলী সাহেব একজন কৃষক। তিনি তার জমি থেকে এ বছর ভালাে ফলন প্রত্যাশা করেন। আলাফফার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র। সে তার বিবিএ ডিগ্রি শেষ করে একটি ভালাে চাকুরি পাওয়ার আশা করে। এখানে জারিফের জিপিএ ৫ পাওয়া, আলী সাহেবের জমি থেকে ভালো ফলন পাওয়া এবং আলগাফফার এর ভালাে চাকরি পাওয়া প্রতিটি বিষয় ভবিষ্যতের সাথে জড়িত। আর ভবিষ্যৎ সবসময় অনিশ্চিত। যেহেতু ভবিষ্যৎ এর কোন বিষয় সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায় না তাই একে অনিশ্চয়তা বলে।

জারিফ জিপিএ ৫ পেতে পারে, নাও পেতে পারে, আলী সাহেবের জমিতে এবছর ভালাে ফলন হতে পারে, আবার নাও হতে। এবং আফিফার ভালাে চাকরি পেতে পারে আবার নাও পেতে পারে। নুষের দৈনন্দিন জীবনে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন অনিশ্চয়তা বিদ্যমান। মানুষের ক্তিগত জীবনে যেমন অনিশ্চয়তা রয়েছে তেমনিভাবে ব্যবসায়ের প্রতিটি ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম অনিশ্চয়তা বিদ্যমান। উদাহরণস্বরূপ ভবিষ্যতে কোম্পানির পণ্যের আশানুরূপ বিক্রয় হবে কি না, প্রত্যাশিত অনুযায়ী মুনাফা অর্জন করতে কি না, প্রত্যাশিত মূল্যে পণ্য তৈরির কাঁচামাল ক্র্য করতে পারবে কি রূপ অসংখ্য অনিশ্চয়তা রয়েছে। অনুরূপভাবে একজন বিনিয়ােগকারী। পানির শেয়ার ক্রয় ও বিক্রয় করে প্রত্যাশিত লভ্যাংশ অর্জন না, একটি কোম্পানি দীর্ঘমেয়াদি প্রকল্পে বিনিয়ােগ থেকে প্রবাহ পাবে কি না এসব অনিশ্চয়তার সম্মুখীন হয়। একটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান প্রথমত অর্থ সংগ্রহ করে এবং বিভন্ন প্রকল্পে বিনিয়ােগ করে প্রত্যাশা অনুযায়ী মুনাফা অর্জন করার লক্ষে।

কিন্তু বিভিন্ন অনিশ্চয়তার কারণে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের প্রকৃত মুনাফা প্রত্যাশিত মুনাফার চেয়ে কম বা বেশি হয়। প্রকৃত মুনাফা প্রত্যাশিত মুনাফার চেয়ে ভিন্ন হওয়ার সম্ভাবনাকেই ঝুঁকি বলা হয়। অর্থাৎ কি বলতে আর্থিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাকে বুঝায়। যেমন: একটি কোম্পানি আশা করছে, আগামী বছর ১০% নিট মুনাফা লাভ করবে, কিন্তু প্রকৃত লাভ হলাে ৫%। এই যে মুনাফার ৫% বিচ্যুতি, একেই কি বলে। J.C Van Horne (ভ্যান হর্ন) এর মতে “কোন প্রকল্পের – পরিবর্তনশীলতাকেই কি বলে।” J.JHampton (হ্যাম্পটন) এর মতে, “কোন কি CHANNE গি হতে প্রত্যাশিত রিটার্ন অপেক্ষা প্রকৃত রিটার্ন কম হওয়ার সম্ভাবনাকে হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা যেতে পারে।”

খ) ঝুঁকি ও অনিশ্চতার পার্থক্যঃ

ঝুঁকির সৃষ্টি হয় অনিশ্চয়তা থেকে, তারপরেও ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তার মধ্যে কিছু পার্থক্য রয়েছে। প্রথমত, সব নিশ্চয়তা ঝুঁকি নয়। অনিশ্চয়তা পরিমাপ করা যায় না অন্যদিকে ঝুঁকি পরিমাপ করা যায়। অপ্রত্যাশিত কোনাে ঘটনা ঘটার আশঙ্কাই হচ্ছে অনিশ্চষতা। কিন্তু অপ্রত্যাশিত কোনাে ঘটনা ঘটার আশঙ্কা কেমন তা যদি জানা না থাকে, তবে অনিশ্চয়তাকে কি বলা যায় না। অন্যভাবে বলা যায়, অনিশ্চয়তার যে অংশটুকু পরিমাপ করা যায় সে অংশকে ঝুঁকি বলা হয়। কিছু কিছু , যা পরিমাপ করা যায়না। উদাহরণস্বরূপ, একটি কোম্পানির প্রধান নির্বাহির মৃত্যু হতে পারে, এটা একটা অনিশ্চয়তা, কিন্তু এই অনিশ্চয়তাকে পরিমাপ করা যায় না। ফলে এই রকম অনিশ্চয়তাকে কি বলা যায় না।

দ্বিতীয়ত, ঝুঁকি পরিমাপ করা যায় বলে বিভিন্ন কৌশল প্রয়ােগ করে ঝুঁকির পরিমাণ কমানাে যায়। কিন্তু অনিশ্চয়তাকে বিভিন্ন কৌশল প্রয়ােগ করে কমানাে বা পরিহার করা যায় না। উদাহরণস্বরূপ, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে কোনাে কোম্পানির দালান ভেঙে যেতে পারে, কিন্তু ঘূর্ণিঝড় কোম্পানির নিয়ন্ত্রণে নেই বলে এই অনিশ্চয়তাকে কোম্পানি পরিহার করতে পারে না। পক্ষান্তরে, ভবিষ্যতে কোম্পানির বিক্রয় কমে যাওয়ার আশঙ্কা একটি ঝুঁকি। কারণ, এই ঝুঁকি পরিমাপ করা যায় এবং এই ঝুঁকি হ্রাস করার জন্য কোম্পানি বিভিন্ন কৌশল তাৱলম্বন করতে পারে।

গ) ঝুঁকির শ্রেণীবিভাগঃ

ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের দৃষ্টিকোণ থেকে ঝুঁকির প্রকারভেদ

ক, আর্থিক ঝুঁকি (Financial Risk)

খ, ব্যবসায়িক ঝুঁকি (Business Risk)

ক, আর্থিক ঝুঁকি (Financial Risk): কোন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের মূলধন কাঠামােতে ঋণকৃত মূলধন ব্যবহারের ফলে যে ঝুঁকির সৃষ্টি হয় তাকে আর্থিক বলা হয়। অর্থাৎ কোন বিনিয়ােগ হতে ঋনকৃত মূলধনের সুদ এবং আসলকরার মতাে পর্যাপ্ত নগদ প্রবাহ পাওয়ার সম্ভাবনাকে আর্থিক ঝুঁকি বলা হয়। ধারনত ঋণ গ্রহণের মাধ্যমে আর্থিক ঝুঁকির সৃষ্টি হয়। যদি কোন ব্যবসায় ঠানে ঋণকৃত মূলধন ব্যবহার করা না হয় তাহলে ঐ প্রতিষ্ঠেনি কোন এক ঝুঁকি থাকে না। একদিকে মূলধন ব্যবহার করা হলে প্রতিষ্ঠানের মালিকদের যেমন আয় দিকে আর্থিক দায় বৃদ্ধি পায়। যে সকলপ্রতিষ্ঠানে ঋণকৃত মূলধনের পরিমান বেশি, সে সকলপ্রতিষ্ঠানে আর্থিক ঝুঁকি ও বেশি। কারণ ঋণকৃত মূলধনের জন্য সুদ প্রদান করা বাধ্যতামূলক।

অন্যদিকে, অভ্যন্তরীণ উৎস হতে অর্থ সংগ্রহ করা হলে মুনাফা প্রদান বাধ্যতামূলক নয়। ঋণকৃত মূলধন ব্যবহার করা হলে সুদ এবং উক্ত ঋণকৃত অর্থ পরিশােধের দায় সৃষ্টি হয়। উদাহরণস্বরূপ, কোনাে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান যদি সােনালী ব্যাংক হতে ১৫% হারে ৫০ লক্ষ টাকা ৫ বছরের জন্য ঋণগ্রহণ করে, তাহলে প্রতি বছর ৭৫০,০০০ টাকা সুদ এবং পাঁচ বছর শেষে ৫০ লক্ষ টাকা পরিশােধের দায় সৃষ্টি ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান সাধারণত ঋণকৃত মূলধন বিনিয়ােগ থেকে প্রাপ্ত প্রবাহ দিয়ে ঋণকৃত মূলধনের দায় পরিশােধ করে। কোনাে কারণে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিনিয়ােগকৃত অর্থ থেকে পর্যাপ্ত নগদ প্রবাহ না পেলে দায় পরিশােধে ব্যর্থ হতে পারে। দীর্ঘসময় দায় পরিশােধ করতে ব্যর্থ হলে ঋণ সরবরাহকারী ব্যাংক বা প্রতিষ্ঠান ঋণগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পারে এবং প্রতিষ্ঠনিটি দেউল্যিা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। ফলে আ দায় পরিশােধের ব্যর্থতা থেকে যে ঝুঁকির সৃষ্টি হয়।

 

ঙ) আদর্শ বিচ্যুতি মানের প্রভাব ও বিনিয়ােগের ক্ষেত্রে নির্বাচনঃ

প্রথমে বিগত ৪ বছরের আয় যােগ করে ৪ দিয়ে ভাগ করলে গত ৪ বছরের গড় আয় পাওয়া যাবে। উপরের টেবিলে দেখা যাচ্ছে গড় আয় ১৫%। এবার ঝুঁকি পরিমাপ করার জন্য দর্শ বিচ্যুতি প্রয়ােগ করবাে। প্রথমে আমরা প্রতিবছরের আয় থেকে গড় আয় বা ১৫%-এর ব্যবধান বের করব। এর পরের কলামে এটাকে বর্গ করতে হবে। এবার উক্ত বর্গসমূহের যােগফল হলাে ২৫০ এবং ৩৮। একে (n-1) বা (৪১) বা ৩ দিয়ে ভাগ করতে হবে। যত বছরের আয় তা থেকে সর্বদাই ১ কম দিয়ে ভাগ করতে হবে। ভাগফলকে বর্গমূল করলে আমরা আদর্শ বিচ্যুতি পাব। দুকে এটা ৯.১২৮৭% এবং ৩,৫৫৯%। সুতরাং ৪ বছরের আয়ের ভিত্তিতে আমাদের গড় আয়ু ১৫% এবং ১৫% আরঝুঁকির পরিমাণ ৯.১২৮৭% এবং ৩.৫৫৯%।

এই আয় ও ঝুঁকি ব্যবহার করে আমরা ভবিষ্যতের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারব। সিদ্ধান্ত গ্রহণঃ অরণ্য প্রকল্পে যদি আমরা ১৫ আয় পাই এবং আদর্শ বিচ্যুতি ৯.১২৮৭% এবং অনন্য প্রকল্পে যদি আমরা ১৫% আয় পাই এবং আদর্শ বিচ্যুতি ৩.৫৫৯০, তবে বিকল্প প্রকল্প থেকে আমাদের দ্বিতীয় প্রকল্প বেশি গ্রহণযােগ্য। কারণ সমপরিমাণ আয় কিন্তু ঝুঁকি কম হওয়ায় দ্বিতীয় প্রকল্প গ্রহণযােগ্য। সাধারণত আদর্শ বিচ্যুতির মান যত বেশি ঝুঁকিও ততবেশি এবং আদর্শ বিচ্যুতির মান যত কমবা ছােট তার কম ঝুঁকি নির্দেশ করে। সমান আযে কম ঝুঁকি বেশি গ্রহণযােগ্য এবং সমান ঝুঁকিতে অধিক লাভ বেশি গ্রহণযােগ্য।

আরও দেখুনঃ

এসএসসি 2021 সালের হিসাববিজ্ঞান [৬ষ্ঠ সপ্তাহ] অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর। SSC 2021 Accounting Assignment

সকল পোস্টের আপডেট পেতে ‍নিচের ফেসবুক আইকনে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেইজে জয়েন করুন।

Check Also

৯ম শ্রেণি [৩য় সপ্তাহ] ভূগোল ও পরিবেশ এসাইনমেন্ট উত্তর 2022। পিডিএফ উত্তর ডাউনলোড করুন এখানে

নবম শ্রেণীর 2022 শিক্ষাবর্ষের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের তৃতীয় সপ্তাহের জন্য নির্ধারিত ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসাইনমেন্ট …