মানব জীবনে সফলতা : প্রসঙ্গ তাকওয়া। দাখিল 2021 কুরআন মাজিদ ও তাজভীদ ৪র্থ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর।

দাখিল 2021 সালের কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ চতুর্থ সপ্তাহের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। প্রিয় দাখিল 2021 সালের পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা। দাখিল কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ চতুর্থ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশে কিছুটা বিলম্ব হওয়ার জন্য আমরা আমাদের ওয়েবসাইট এর পক্ষ থেকে দুঃখ প্রকাশ করছি। আপনারা আমাদের প্রকাশিত এই পোস্টে শেষ অংশ থেকে দাখিল 2021 কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ চতুর্থ সপ্তাহের নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। যা আপনাদের কোরআন মাজীদ ও তাজবীদ অ্যাসাইনমেন্ট এর সর্বোচ্চ নম্বর পেতে সহযোগিতা প্রদান করবে। দাখিল কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ চতুর্থ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর পেতে নিচের অংশ ভালভাবে পড়ুন।

দাখিল কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ চতুর্থ সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন। ছাত্র-ছাত্রীদের বোঝার সুবিধার্থে উত্তরের পড়বে প্রশ্ন দেওয়া হল। যাতে করে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রশ্ন বুঝে প্রশ্নের নং অনুযায়ী অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর ডাউনলোড করে অ্যাসাইনমেন্ট খাতা সংগ্রহ করে নিতে পারে।

প্রশ্নঃ

মানব জীবনে সফলতা : প্রসঙ্গ তাকওয়া

শিখনফল/বিষয়কন্তুঃ

মুত্তাকির বৈশিষ্ট্যাবলি

নির্দেশনাঃ

الم (۱) ذلك الكتاب لا ريب فيه هذي للمتقين (۲) الذين يؤمنون بالغيب ويقيمون الصلاة ومما رزقناهم ينفقون (۳) والذين يؤمنون بما أنزل إليك وما انزل من قبلك وبالآخرة هم يوقنون (4) أوليك على هدي من رم وأولئك من المفلحون (ه)

মুত্তাকির পরিচয় ও বৈশিষ্ট্য শান্তিময় গঠনে সমাজ তাকওয়ার গুরুত্ব তাহকিক : يؤمنون، رزقناهم، أثزل، ميخو

দাখিল 2021 কোরআন মাজীদ ও তাজবীদ চতুর্থ সপ্তাহ উত্তর

প্রিয় দাখিল 2021 সালের পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা। চলুন নিচের অংশে দাখিল কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ চতুর্থ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর দেখে নেয়া যাক।

উত্তরঃ

ভূমিকা; তাকওয়া অর্থ খােদাভীতি| মহান আল্লাহ তায়ালার ভয়ে শরিয়ত নির্দেশিত বিধানানুযায়ী জীবনযাপন করা ইসলামের নিষেধাজ্ঞা অমান্য না করা| যাপিত জীবনের প্রতিটি ক্ষণ, শাখা ও কার্যক্রমে ইসলামী বিধি-বিধান মান্য করা। উল্লেখিত আয়াত সমূহে তাকওয়া বা খােদাভিরু সম্পর্কে আলােচনা হয়েছে। নিম্নে প্রশ্নালােকে বিস্তারিত আলােচনা হল।

(ক) নির্দেশনায় উদ্ধৃত আয়াতগুলাের বঙ্গানুবাদ:

১. “আলিফ লাম মীম”| এ গুলােকে আরবীতে ‘হুরূফে মুক্বাত্ত্বাআত’ ( বিচ্ছিন্ন বর্ণমালা) বলা হয়। অর্থাৎ, একটি একটি করে পঠনীয় অক্ষর। এগুলাের অর্থের ব্যাপারে কোন নির্ভরযােগ্য বর্ণনা নেই। আল্লাহই এর অর্থ সম্পর্কে সর্বাধিক জ্ঞাত|

২. “এ সেই কিতাব যাতে কোনই সন্দেহ নেই। পথ প্রদর্শনকারী পরহেযগারদের জন”| এ কিতাবের অবতরণ যে আল্লাহর নিকট থেকে এ ব্যাপারে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই|

৩. “যারা অদৃশ্যের উপর বিশ্বাস স্থাপন করে এবং নামায প্রতিষ্ঠা করে| আর আমি তাদেরকে যে রুযী দান করেছি তা থেকে ব্যয় করে”| অদেখা বিষয়সমূহ হল এমন সব জিনিস যার উপলব্ধি জ্ঞান ও ইন্দ্রিয় দ্বারা সম্ভব নয়।

৪. “এবং যারা বিশ্বাস স্থাপন করেছে সেসব বিষয়ের উপর যা কিছু তােমার প্রতি অবতীর্ণ হয়েছে এবং সেসব বিষয়ের উপর যা তােমার পূর্ববর্তীদের প্রতি অবতীর্ণ হয়েছে| আর আখেরাতকে যারা নিশ্চিত বলে বিশ্বাস করে” | পূর্ববর্তী নবী-রাসূলদের প্রতি যে কিতাব নাযিল হয়েছে এবং মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি যা নাযিল হয়েছে তার প্রতি হবে এবং সর্বশেষ কিতাব (আল কুরআন) অনুযায়ী চালাতে হবে।

৫. “তারাই নিজেদের পালনকর্তার পক্ষ থেকে সুপথ প্রাপ্ত, আর তারাই যথার্থ সফলকাম’ | উপরে বর্ণিত গুণাবলীর লােকেরাই সফলকাম এবং পথপ্রাপ্ত। তারাই নাযাতের পথে।

শানে নুযুল : ওপরের আয়াতসমূহ মালিক সাইফ নামক একজন ইহুদী প্রসঙ্গে নাজেল হয়েছে | সে মােমিনদের অন্তরে সন্দেহ সৃষ্টি করার লক্ষ্যে বলে বেড়াত, এ কুরআন সেই কিতাব নয় , যার শুভ সংবাদ পূর্ববর্ত আসমানি গ্রন্থে দেওয়া হয়েছে | আল্লাহ তায়ালা এ আয়াত নাজেল’ করে তার এ বিভ্রান্তিকর উক্তিতে সৃষ্ট সন্দেহ ও সংশয় দূর করেছেন | কোন কোন মুফাসসির বলেন যে , আল্লাহ পাক রসুলুল্লাহ স.- কে বলেছিলেন , “ আমি আপনার নিকট অতি সুন্দর ও অতুলনীয় একখানা গ্রন্থ নাজেল করব ” এরপর যখন কুরআন মাজিদ অবতীর্ণ হতে শুরু করে , তখন হযরত রসুলুল্লাহ স. আল্লাহ তায়ালার দরবারে বলেন , “ হে আমার রব , এটাই কি সেই কিতাব , যে সম্পর্কে আপনি পূর্বেই আমাকে বলেছিলেন?” তখন আল্লাহ তায়ালা উক্ত প্রশ্নের উত্তরে অত্র আয়াত গুলো নাজিল করেন।

(খ) মুত্তাকির পরিচয় ও বৈশিষ্ট্য:

* মুত্তাকির পরিচয় ; মুত্তাকী এমন ব্যক্তি যার মধ্যে তাকওয়া রয়েছে। তাকওয়া একটি অসাধারণ নৈতিকগুণ| আল্লাহর কাছে মর্যাদা প্রাপ্তির এক অনিবার্য উপায়। পরকালীন জীবনে ব্যক্তির ক্ষতির কারণ হতে পারে এমন কাজ ও বিষয় থেকে বিরত থাকাই তাকওয়া। * মুত্তাকির বৈশিষ্ট্য:

১. গায়বের প্রতি বিশ্বাসী : মুত্তাকী ব্যক্তির প্রথম পরিচয় হলাে তারা গায়ব বা অদৃশ্য বিষয়সমূহে ঈমান পােষণ করে। আর গায়ব হলাে এমন বিষয় যা ইন্দ্রিয় দিয়ে অনুভব করা যায় না| সাধারণ বুদ্ধি দিয়ে বােঝা যায়।

২. সালাত কায়েমকারী : মুত্তাকীর দ্বিতীয় বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করে আল্লাহ বলেনوينمون اصلو অর্থ: আর তারা সালাত কায়েম করে (সুরা আল-বাকারা:

মুত্তাকীর সালাত কায়েম করার অর্থ হলাে সে নিজে সমস্ত নিয়ম মেনে বিনয়-নম্রতা ও নিষ্ঠার সাথে সালাত আদায় করে যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে সালাতের ফরজ, ওয়াজিব, সুন্নত, নফল, হারাম, মাকরুহ প্রভৃতি বিধান পালনের মধ্যমে সমাজে নামাজ পতিষ্ঠা করা।

৩. আল্লাহর পথে সম্পদ ব্যয়কারী : মুত্তাকীর তৃতীয় বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করে আল্লাহ বলেন- : আর তাদের যে জীবিকা দেওয়া হয়েছে, তারা সেখান থেকে ব্যয় করে (সুরা আল-বাকারা:

মুত্তাকীর ফি সাবিলিল্লাহ বা আল্লাহর পথে সম্পদ ব্যয় করার অর্থ হলাে তারা জাকাত-সাদাকাহ আদায় করে। মানুষের যেকোনাে কল্যাণে নিজেদের সম্পদ ব্যয় অব্যাহত রাখে।

৪. আসমানি কিতাবে বিশ্বাসী : মুক্তাকী আসমানি কিতাবের সত্যতায় বিশ্বাস রাখে আল্লাহ বলেন- “আর যারা আপনার প্রতি যা আমি নাজিল করেছি তার প্রতি ইমান রাখে| যা আপনার পূর্বে নাজিল করেছি তার প্রতিও বিশ্বাস পােষণ করে (সুরা আল-বাকারা:

এক্ষেত্রে অবশ্য বিশ্বাসের ধরনে পার্থক্য রয়েছে। মুক্তাকীরা রাসুলুল্লাহ (স) এর পূর্বে নাজিলকৃত আসমানি কিতাবগুলাে যে আল্লাহর পক্ষ থেকেই নাজিল হয়েছে সে বিশ্বাস রাখে, কিন্তু এগুলাের অনুসরণ ও অনুশীলন করে না।

৫. পরকালে বিশ্বাসী : মুত্তাকীরা পরকালে সুদৃঢ় প্রত্যয় পােষণ করে| আল্লাহ বলেন- আর তারাই পরকালে ইয়াকিন বা বিশ্বাস পােষণ করে (সুরা আলবাকারা: ৪)। ইয়াকিন হলাে অত্যন্ত সুদৃঢ় বিশ্বাস| মুত্তাকীরা বিশ্বাস করেপৃথিবী ক্ষণস্থায়ী। এখানে মানুষ মাত্র কিছুকাল অবস্থান করবে| পৃথিবীতে তারা মূলত প্রস্তুতি নেবে পরবর্তী জীবনের জন্য| সে জীবন অনন্তকালের।

(গ) শান্তিময় সমাজ গঠনে তাকওয়ার গুরুত্ব :

১. সুষ্ঠু সমাজ বিনির্মাণের প্রধান উপকরণ : একটি সমাজকে সুন্দর, সুষ্ঠু, পুত-পবিত্র, পরিশুদ্ধ সর্বপরি সমৃদ্ধশালী করতে হলে ইসলামী আখলাকের প্রধান গুণ তাকওয়া একান্ত প্রয়ােজন। একজন তাকওয়াবান মুমিনের জীবনে সুনাগরিকের সকল গুণ বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান। অবশ্য তাকওয়াবান মানুষ না হলে, একটি সুন্দর, শান্তিময় সমাজ গড়ে তােলা যায় না। তাই সমাজে সকল সদস্যকে তাকওয়ার জীবন অবলম্বন করা অপরিহার্য।

২. সামাজিক শৃক্মখলায় তাকওয়া : সমাজে শান্তি-শৃক্মখলা রক্ষায় তাকওয়া একান্ত অপরিহার্য। কেননা তাকওয়াবান মানুষ তার কাজ-কর্মে আন্তরিক ও নিষ্ঠাবান| আর আন্তরিক ও নিষ্ঠার সাথে সমাজের সদস্যগণ যদি দায়িত্ব পালন করেন, তবে সে সমাজ অবশ্যই শান্তি ও শৃক্মখলাময় হতে বাধ্য।

৩. সামাজিক মূল্যবােধ সৃষ্টিতে তাকওয়া : সামাজিক জীবনে সামাজিক মূল্যবােধে তাকওয়া অপরিহার্য তাকওয়া সমাজের মানুষের মধ্যে সামাজিক মূল্যবােধ সৃষ্টি করে। তাই একজন তাকওয়াবান মানুষ কখনও অপরের অধিকার হরণ করে না, অপরকে কষ্ট দেয় না, অন্যায়-অনাচার থেকে নিজে বেঁচে থাকে, সমাজকে এ থেকে বাঁচায়| সমাজের অনিষ্ট ও অকল্যাণ হয় এমন কাজ তার দ্বারা হয় না |

৪. সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় তাকওয়া ; সামাজিক ন্যায়বিচার ও ন্যায়নীতি প্রতিষ্ঠার জন্য তাকওয়া একান্ত প্রয়ােজনীয় গুণ| তাকওয়াবান মানুষ সমাজে কখনাে ন্যায়-নীতির বিপরীত কোন কাজ হতে দেয় না এবং সেও করে না। আল্লাহ বলেন : “তােমরা ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা কর। কেন না ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা তাকওয়ার খুব নিকটবর্তী। (সূরা আল মায়িদাহ : ৮)।

৫. সামাজিক নিরাপত্তা ও আস্থা : সামাজিক নিরাপত্তা, পারস্পরিক বিশ্বাস ও আস্থা সৃষ্টির জন্য তাকওয়া অবলম্বন করা একান্ত প্রয়ােজন| তাকওয়াবিহীন সমাজে সামাজিক আস্থা ও নিরাপত্তা গড়ে উঠে না |

(ঘ) উদ্ধৃত শব্দ সমূহের তাহকিক :

التحقيق لالفاظ المذكورات

১। يؤمنون الصيغة. جمع مذرغائب البحث- اثبات فعل مضارع معروف الباب – افعال المصدر :لايمان المادة – ا. م. ن الجنس – مهموزف المعنى. يوقنون .

২। رزقنا هم هم – ضمير منصوب متصل الصيغة. جمع متکلم البحث. اثبات فعل ماضی معروف الباب .نصر ينصل المصدر الرزق المادة .ر ز ق الجنس.صحيح رزق المعنى – اعطيناهم لغذاء والرزق

৩। انزل الصيفة. واحد مذکر غائب البحث اثبات فعل ماضی مجهول الباب افعال المصدر. الانزال المادة – ن. ز. ل الجنس:صحيح المعني. أعطى الكتاب انزل ৪। مفلحون الصيغة. جمع مذکر البحث. اسم فاعل الباب – افعال المصدر – الافلاح المادة . ف. ل. ح الجنس. صحيح المعنى – الفائزون.

আরও দেখুনঃ

দাখিল 2021 ইসলামের ইতিহাস [৪র্থ সপ্তাহ] অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর। Dakhil পরীক্ষার্থী ব্যাচ- 2021

Check Also

বই পড়ার অভ্যাস গঠনে লাইব্রেরির গুরুত্ব বিশ্লেষণ। ৯ম শ্রেণি [৩য় সপ্তাহ] বাংলা

৯ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট এর নির্ভুল এবং পূর্ণাঙ্গ উত্তর প্রকাশ করা হলো। প্রিয়  ৯ম শ্রেণীর …